Sale!

মিক্সড ড্রাই ফ্রুটস দাম ! Mixed Dry Fruits Price

৳ 299.00

সরাসরি কিনতে ফোন করুন: 01751358525

>> ক্যাশ অন ডেলিভারি তে সারাদেশে ডেলিভারি করা হয়ে থাকে !

>> ঢাকার মধ্যে ডেলিভারি খরচ ৫০ টাকা ঢাকার বাইরে ডেলিভারি খরচ ১০০ টাকা !

>> প্রোডাক্ট হাতে পেয়ে চেক করে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন তাই নিরাপদ ও নিশ্চিন্তে কিনতে পারেন !

>> মূল্যবান ডেলিভারি খরচ সাশ্রয় করতে একসাথে কয়েকটি প্রোডাক্ট অর্ডার করুন !

562 in stock

Description

মিক্সড ড্রাই ফ্রুটস দাম

সরাসরি কিনতে ফোন করুন:  মিক্সড ড্রাই ফ্রুটস দাম
01751358525
01751358526
পণ্য সমগ্র বাংলাদেশে ডেলিভারী দেওয়া হয়।
ডেলিভারী চার্জ ঢাকায় ৬০,বাহিরে ১০০ টাকা।
ঢাকার বাহিরে থেকে অর্ডার করতে চাইলে 200 টাকা অগ্রিম ডেলিভারি পরিশোধ করে অর্ডার করুন নতুন অর্ডার থেকে বিরত থাকুন।
বিকাশ নম্বর ও হট লাইনঃ 01751358525 (parsonal)

 

মিক্সড ড্রাই ফ্রুটস দাম

মিক্সড ড্রাই ফ্রূটস ও নাটস’এর মুল্য :৫০০ গ্রাম ৬০০/- টাকা

মধুময় মিক্সড ড্ৰাই ফ্রূটস

মধুময় মিক্সড ড্রাই ফ্রূটস-এর মিলিত শক্তিতে সর্বোচ্চ পুষ্টিমানসম্পন্ন ও ভীষণ মজাদার এবং সবচেয়ে কম দামে বেস্ট কোয়ালিটি পাচ্ছেন আমাদের কাছে।
1. মধুময় মিক্সড ড্রাই ফ্রূটস” কেন খাবেন?
2. মধুময় মিক্সড ড্রাই ফ্রূটস নিয়োমিত খাবারে
3. শরীরে রো’গ প্রতিরো’ধ ক্ষম’তা বৃদ্ধিতে অতুলনীয়।
4. যারা শরী’র ফি’ট রাখতে চান তাদের জন্য খুবই উ’পকারী।
5. চেহারায় লাবণ্য ধরে রাখতে খুবই কার্যকর।
6. র’ক্তে কো’লেস্টরেল কমানোর পাশাপাশি ক্যা’ন্সার সৃষ্টি হতে বাধা দেয়।
7. হার্ট এ’টাক ও স্ট্রো’কের আশংকা হ্রাস পায়।
8. কোলেস্টরেল, ব্লাড সুগার , মাইগ্রেন এবং উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে।
9. গর্ভব’তী মায়েদের জন্য খুবই উপকারী।
10. ব্র’ণ প্রতিরোধ করে এবং দাঁতের ক্ষয় রোধ করে।
11. চোখের দৃষ্টি শক্তি বৃদ্ধি করে ।
12. শ’রীরের ক্লান্তিভাব ও দু’র্বলতা দূর করে শা’রীরিক শক্তি বৃদ্ধি করে।
13. স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি করে এবং তীক্ষ্ণ মেধা সম্পন্ন হতে সাহায্য করে।
14. অকাল বা’র্ধক্য রোধে অত্যন্ত কার্যকর ভূমিকা রাখে।
15.আখরোট ও বুনে চাকের মধু মিশ্রনে তৈরী করেছি মধুময় আখরোট।

 

২৪ টি উপাদানে তৈরী প্রিমিয়াম কোয়ালিটি “মধুময় মিক্সড ড্ৰাই ফ্রূটস” গুলে নিম্নে দেয়া হলো।

১। কাঠ বাদাম
২। কাজু বাদাম
৩। রোস্টেড কাজু বাদাম
৪। পেস্তা বাদাম
৫। আখরোট বাদাম
৬। মরিয়ম খেজুর
৭। আজওয়া খেজুর
৮। খুরমা খেজুর
৯। এপ্রিকোট
১০। তীন ফল
১১। ড্রাই অাপেল
১২। ড্রাই স্টবেরি
১৩। ড্রাই গাজর
১৪। ড্রাই জাম্বুরা
১৫। ড্রাই আনারস
১৬। ড্রাই আম
১৭। পামকিন সীড
১৮।সানফ্লাওয়ার সীড
১৯। তরমুজ বীজ
২০।কালো কিসমিস
২১। গোল্ডেন কিসমিস
২২। আফগান কিসমিস
২৩। জর্দা আলু
২৪। বুনো চাকের মধু।

বিঃদ্রঃ মধুময় মিক্সড ড্রাই নাটস ও সিডস’এর ভালো দিক হলো, এটি দীর্ঘদিন সংরক্ষণ করে খাওয়া যায় ও সহজে বহনযোগ্য, পচনশীল নয়। শুকনো কাচের বয়াম বা জারে সংরক্ষণ করে ঠান্ডা ও শুষ্ক স্থানে সংরক্ষণ করুন এবং প্রতিদিন কিছু পরিমাণ করে খেতে পারেন।

বিশেষ দ্রষ্টব্য : পণ্যের মান নিয়ে কোন অভিযোগ থাকলে পণ্য পরিবর্তন অথবা মূল্য ফেরত যোগ্য।

মিক্সড ড্রাই ফ্রুটস এর উপকারিতা

মিক্সড ড্রাই ফ্রুটস ক্যান্সার রোগ প্রতিরোধ করে। মিক্সড ড্রাই ফ্রুটস খেলে ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণে রাখে। … এ খাবারের ফলে দাঁতের রোগ ও লিভারের সমস্যার উপকার করে থাকে, স্মৃতিশক্তি প্রখর করে, চোখের ছানি ও অন্যান্য চোখের সমস্যা দূর করে, হজমশক্তি বাড়িয়ে দিতে সাহায্য করে, রক্তশূন্যতা দূর করে।

অনেক ভিটামিনের সমাহার হওয়ায় এক সাথে অনেক ভিটামিন শরীরে প্রবেশ করে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

– ওজন কমাতে সাহায্য করে, তবে প্রয়োজনের বেশি খেলে ডায়াবেটিস হবার সম্ভাবনা থাকে। তাই প্রয়োজনের অধিক খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে।

– কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে।

– ক্ষুধা নিবারণ করে পেটকে শান্ত রাখে।

– ড্রাই ফ্রুটসে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-এজিং উপাদান থাকে, যার ফলে চেহারা থাকে তারুণ্যে ভরা।

– এতে বিভিন্ন পুষ্টি উপাদান রয়েছে। যা রক্তস্বল্পতা দূর করতে সাহায্য করে।

– দাঁত, হাড় ও চোখের জন্য উপকারী।

– শরীরের কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে রেখে হৃৎপিণ্ড সুস্থ রাখে।

– বিষণ্ণতা দূর করে মন ভালো রাখে।

মিক্সড ড্রাই ফ্রুটস খাওয়ার নিয়ম

উপকার পেতে কিছু ‘ড্রাই ফ্রুটস’ পানি ভিজিয়ে রেখে খাওয়া উচিত। কাঠবাদাম এর উৎকৃষ্ট উদাহরণ। সারারাত পানিতে ভিজিয়ে রেখে সকালে তা খেলে সর্বোচ্চ উপকার পাবেন। অপরদিকে পেস্তাবাদাম দুপুরের স্ন্যাকস হিসেবে সরাসরি খাওয়ার জন্য আদর্শ।

যেকোনো ‘ড্রাই ফ্রুটস’ একবারে একমুঠ পরিমাণ খেয়ে না ফেলে দিনের বিভিন্ন খাবারের সঙ্গে মিশিয়ে খাওয়া বেশি উপকারী। কিছু বাদাম সামান্য ভেজে নিলে তার স্বাদ বাড়ে। কাজুবাদাম ১৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় আধাঘণ্টা ভাজলে এর ‘ফেনোলিক কম্পাউন্ড’ ও ‘ফ্লাভানয়েড’য়ের মাত্রা বাড়ে। ভেজে খেলে কুমড়ার বীজ অনেক সুস্বাদু হয়।

বাদাম মিশ্রিত মধু খাওয়ার উপকারিতা

মধু মিশ্রিত বাদাম প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে খালিপেটে ২ টেবিল চামচ খাবেন তাহলে বেশি উপকারিতা পাবেন। তাছাড়াও দিনে যে কোনো সময় খাওয়া যায়। এটা বডিতে পাওয়ার বুষ্টার হিসাবে কাজ করে এবং বডিতে ফাইবার সিস্টেম বুষ্ট করে,ইমিউন সিস্টেম বাড়ায় এবং প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সাপ্লাই দেয়। বুস্ট ইমিউন সিস্টেম।

মধু আমাদের দেহে প্রয়োজনীয় মিনারেলস ও ভিটামিন সংরক্ষণ করে। মধু মিশ্রিত বাদাম প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে খালিপেটে ২ টেবিল চামচ খাবেন তাহলে বেশি উপকারিতা পাবেন। তাছাড়াও দিনে যে কোনো সময় খাওয়া যায়।এটা বডিতে পাওয়ার বুষ্টার হিসাবে কাজ করে এবং বডিতে ফাইবার সিস্টেম বুষ্ট করে,ইমিউন সিস্টেম বাড়ায় এবং প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সাপ্লাই দেয়।

মিক্সড ড্রাই ফ্রুটস দাম

উপকারিতা:
হার্টের ব্যাধি থেকে মুক্তি দিন।
হজমে সহায়তা করে।
খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমিয়ে দিতে পারে।
বুস্ট ইমিউন সিস্টেম।
ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কমায়।

ড্রাই ফ্রুট খাওয়ার নিয়ম

সর্বোচ্চ উপকার পেতে কিছু ‘ড্রাই ফ্রুটস’ পানি ভিজিয়ে রেখে খাওয়া উচিত। কাঠবাদাম এর উৎকৃষ্ট উদাহরণ। সারারাত পানিতে ভিজিয়ে রেখে সকালে তা খেলে সর্বোচ্চ উপকার পাবেন। অপরদিকে পেস্তাবাদাম দুপুরের স্ন্যাকস হিসেবে সরাসরি খাওয়ার জন্য আদর্শ।

আরো পড়ুনঃ লম্বা হওয়ার ঔষধের দাম 600 টাকা এখনই পরুন

ড্রাই ফ্রুটস তালিকা

এমন অনেক ফল আছে যেগুলো স্বাভাবিক অবস্থায় খাওয়ার পাশাপাশি শুকিয়েও খাওয়া যায়। শুকনো এসব ফল ও বাদামই সাধারণত ‘ড্রাই ফ্রুটস’ নামে পরিচিত। আমাদের দেশে কাঠবাদাম, কাজুবাদাম, কিসমিস, আখরোট, পেস্তা বাদাম, খেজুর সবচেয়ে জনপ্রিয় ড্রাই ফ্রুটস।

কাঠবাদাম: কাঠবাদামে আছে অত্যাবশ্যক ফ্যাটি এসিড, ফাইবার এবং প্রোটিন। ব্রণ প্রতিহত করার জন্য কাঠবাদাম অত্যন্ত কার্যকর। এটি রক্তে হিমোগ্লোবিন বৃদ্ধিকারী এবং রক্ত প্রবাহ বাড়াতেও পারদর্শী। এছাড়াও কাঠবাদাম রক্তে কোলেস্টেরল কমানোর পাশাপাশি শরীরে লাং এবং স্তন ক্যান্সার সৃষ্টি হতে বাধা দেয়।

২. কিসমিস: কিসমিস দাঁতের ক্ষয়ের বিরুদ্ধে লড়াই করে এবং ক্যাভিটিস দূরে রাখে। এই ফুড ভিটামিন এ-এর উৎকৃষ্ট উৎস এবং এরা দৃষ্টি সংক্রান্ত সমস্যা থেকেও আপনার চোখ রক্ষা করে। কিসমিসে থাকা রেসভেরাট্রোল নামক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ত্বক দ্রুত বুড়িয়ে হয়ে যাওয়ার গতিকে ধীর করে দেয়। কিসমিসে পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাস ও আয়রনে ভরপুর। যারা রক্তাল্পতায় ভুগছেন তাদের জন্য অত্যন্ত উপকারী খাদ্য এটি।

৩. আখরোট: আখরোট মস্তিষ্কের খাবার হিসাবে পরিচিত। মস্তিষ্কের ৬৯% ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড দিয়ে গঠিত, যা আখরোটের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে পাওয়া যায়। এছাড়াও আখরোট হৃদপিণ্ডের স্বাস্থ্য উন্নয়নে সহায়ক ভূমিকা পালন করে।